বৃহস্পতিবার ১৪ ডিসেম্বর ২০১৭ || সময়- ৯:০৩ am
‘রক্ত দিয়ে হলেও সন্দ্বীপের সীমানা ফিরে পেতে চাই

ইনফরমেশন ওয়াল্ড বন্দরনগরী  নিউজ ডেক্স
চট্টগ্রাম:-----১৯১৩-১৬ সালে তৈরি ও ১৯৫৪ সালে সংশোধিত জরিপ অনুযায়ী সন্দ্বীপের সীমানা চিহ্নিত করার দাবি জানিয়েছে সন্দ্বীপ সীমানা রক্ষা আন্দোলন কমিটি।
শুক্রবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় এ দাবি জানানো হয়।
সভায় জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি রাজিবুল আহসান সুমন বলেন, সন্দ্বীপের সীমানা নির্ধারণের জন্য আমরা দীর্ঘদিন ধরে লাগাতার আন্দোলন কর্মসূচি চালিয়ে আসছি। সন্দ্বীপের মূল ভূখণ্ড ভেঙে, লক্ষ লক্ষ মানুষকে উদ্বাস্তু করে আশপাশে যে চর জাগছে তা সন্দ্বীপবাসীর। জীবন বাজি রেখে, প্রয়োজনে রক্ত দিয়ে হলেও সন্দ্বীপের সীমানা ফিরে পেতে আমরা ঐক্যবদ্ধ।
এ লক্ষ্যে শনিবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) সকাল ১০টায় চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের সামনে চট্টগ্রামের আপামর মানুষকে নিয়ে মানববন্ধন করা হবে বলে জানান তিনি। এতেও যদি দাবি পূরণ না হয় তবে বৃহত্তর কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে।
চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ইনস্টিটিউট অব মেরিন সায়েন্স অ্যান্ড ফিশারিজের সহযোগী অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ মোসলেম উদ্দিন (মুন্না) বলেন, সন্দ্বীপ নিয়ে তিন বছর গবেষণা করেছি। লন্ডন ও ইতালির জাদুঘরে গেছি সন্দ্বীপের মানচিত্র দেখার জন্য। ১ হাজার ৮ বর্গমাইল এলাকাজুড়ে সন্দ্বীপ। আমরা বীরের দেশ চট্টগ্রামের উপজেলা হিসেবে থাকতে চাই। আমরা বাপ-দাদার ভিটেমাটি ভেঙে গড়ে ওঠা চরে আমাদের স্বীকৃতি চাই। আমরা উন্নয়নের পক্ষে। আমাদের ভূমি ঠেংগার চর, জাহাইজ্জার চরে আমরা লংমার্চ করবো।
সভায় বক্তব্য দেন সমাজসেবী দিদারুল আলম, জেলা যুবদলের সহসভাপতি ফোরকান উদ্দিন রিজভী, কালাপানিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সাইফুল হক চৌধুরী বায়রন, সন্দ্বীপ অ্যাসোসিয়েশনের যুগ্ম সম্পাদক জিয়াউল হাসান শিবলু, অর্থ সম্পাদক মজিবুল মাওলা, সাংগঠনিক সম্পাদক ইয়াছিন মামুন, আন্দোলন কমিটির সমন্বয়কারী মোকতাদের আজাদ খান প্রমুখ।
দিদারুল আলম বলেন, ‘আমার সন্দ্বীপ আমাকে ফিরিয়ে দাও। ১৯৫৪ সালের সংশোধিত মানচিত্র অনুযায়ী আমাদের সন্দ্বীপ আমাদের ফিরিয়ে ‍দাও।’  
মোকতাদের আজাদ খান বলেন, ‘সন্দ্বীপের লক্ষ লক্ষ নদীভাঙা মানুষের পুনর্বাসন করতে হবে সন্দ্বীপের মূল সীমানার ভেতর জেগে ওঠা চরগুলোতে। তাদের জায়গা ফিরিয়ে দিতে হবে।’ 
তথ্য সূত্র :-বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম